1. bdwebexperts@gmail.com : admin :
  2. makadirchy@gmail.com : News Desk : BABUL AHMED
শিশুশ্রমের ঝুঁকি বাড়ছে - Daily Time Desk
August 3, 2021, 5:34 pm
শিরোনামঃ
১০ তারিখ পর্যন্ত ‘লকডাউন’ বৃদ্ধ প্রতিবন্ধীর কথা রাখলেন চুয়াডাঙ্গার-পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম বানিয়াচংয়ে জাতীয় দিবসসমূহ যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করতে প্রস্তুতি সভা সিলেটে লকডাউনে ১০ম দিনে ৩০টি যানবাহনে মামলা বানিয়াচংয়ে ইউনিয়ন পর্যায়ে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রয়োগ সফল করতে ভার্চুয়ালি সভা রাজশাহীতে করোনা রোগীদের পরীক্ষা করতে হাসপাতালের বাইরে যেতে হবে না:পরিচালক শামীম ইয়াজদানী শিল্পাঞ্চল এলাকায় নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে:ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের অতি.আইজিপি সিলেটে লকডাউনে ৯ম দিনে ভ্রাম্যমান আদালতের ৭১,১০০ টাকা জরিমানা কিছু বিদেশি গণমাধ্যম দেশ ও সরকারের বিরুদ্ধে ভুল ও অসত্য সংবাদ দেয়-তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী’ আগামীকাল দুপুর পর্যন্ত চলবে লঞ্চ

শিশুশ্রমের ঝুঁকি বাড়ছে

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট : Friday, June 11, 2021,
  • 29 ভিউ

করোনাভাইরাস মহামারির প্রভাবে যুগ যুগ ধরে শিশুশ্রম বন্ধে যে অগ্রগতি হয়েছে, তা পিছিয়ে পড়ছে। এক এক করে নিভে যাচ্ছে আগামী ভবিষ্যৎ প্রজন্মের আলো।

একদিকে স্কুল বন্ধ, অন্যদিকে পরিবারের অভাব অনটনে শিশুশ্রমের ঝুঁকি বাড়াচ্ছে। পরিবারগুলো অভাবের তাড়নায় শিশুদের পাঠিয়ে দিচ্ছে বিভিন্ন কাজে।

এমনকি যে শিশুরা আগে থেকেই শিশুশ্রমের সাথে জড়িত ছিল তারাও অতিরিক্ত সময় বা অনুপযুক্ত পরিবেশে কাজ করতে বাধ্য হচ্ছে।

শিশুশ্রম বন্ধে আমাদের এখনই সোচ্চার হতে হবে।

মহামারির মাঝে গত মার্চ ২০২০ থেকে স্কুল বন্ধ থাকা এবং দারিদ্র্য বৃদ্ধি অনেক শিশুকে শিশুশ্রমের দিকে ঠেলে দিচ্ছে, যা নিয়ে ইউনিসেফ উদ্বিগ্ন।

বাংলাদেশে ইউনিসেফের প্রতিনিধি টোমো হোযুমি বলেন, ‘মহামারির মাঝে গত মার্চ ২০২০ থেকে স্কুল বন্ধ থাকা এবং দারিদ্র্য বৃদ্ধি আরও অনেক শিশুকে শিশুশ্রমের দিকে ঠেলে দিচ্ছে, যা নিয়ে ইউনিসেফ উদ্বিগ্ন। এই পরিস্থিতিতে পরিবারগুলোর বেঁচে থাকার লড়াই করতে হচ্ছে এবং তার জন্য তারা সব পন্থাই অবলম্বন করতে বাধ্য হচ্ছে। তাই আমাদের এখন শিশুদের প্রয়োজনগুলোকে অগ্রাধিকার দেওয়া এবং এই ক্ষতিকারক শিশুশ্রমের মূলে যেসব সামাজিক সমস্যাগুলো রয়েছে তা নিরসনে জোর দেওয়া প্রয়োজন।’

হবিগঞ্জ জেলার খবর জানতে চোখ রাখুন “হবিগঞ্জ ভয়েস” পেইজে

এ বিষয়ে এখনই পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে আইএলও ও ইউনিসেফ। তারা বলছে—

• সর্বজনীন শিশু সুবিধাসহ সবার জন্য পর্যাপ্ত সামাজিক সুরক্ষার ব্যবস্থা করা।
• মানসম্মত শিক্ষার পেছনে ব্যয় বাড়ানো এবং কোভিড-১৯-এর আগে থেকেই স্কুলের বাইরে থাকা শিশুদের সব শিশুকে স্কুলে ফিরিয়ে আনা।
• প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য যথোপযুক্ত কাজের ব্যবস্থা করার বিষয়টি তুলে ধরা, যাতে পরিবারগুলোকে পারিবারিক উপার্জন বৃদ্ধিতে সহায়তা করতে শিশুদের অবলম্বন করতে না হয়।
• শিশুশ্রমকে প্রভাবিত করে এমন ক্ষতিকারক লৈঙ্গিক রীতিনীতি ও বৈষম্যের অবসান ঘটানো।
• শিশু সুরক্ষা ব্যবস্থা, কৃষিজ উন্নয়ন, পল্লি জনসেবা, অবকাঠামো ও জীবন-জীবিকার পেছনে বিনিয়োগ করা।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
©All rights রেসেরভেদ ©2021 DailyTimeDesk
Theme Customized BY WEB DESIGN BD