চিকিৎসার কথা বলে অসুস্থ মাকে সড়কে ফেলে গেল সন্তানরা

65

প্রায় এক মাস আগে পটুয়াখালীর দশমিনায় জয়নব বেগম নামে এক বৃদ্ধাকে চিকিৎসার কথা বলে সড়কে ফেলে রেখে গেছিল তার সন্তানরা। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছে দশমিনা থানা পুলিশ।

জয়নব বেগম জেলার বাউফল উপজেলার কনকদিয়া ইউপির জয়গড়া গ্রামের আলাউদ্দিন আকনের স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, একমাস আগে জয়নব বেগমকে তার ছেলে আরিফ আকন ও মেয়ে রুনু বেগম চিকিৎসা করানোর কথা বলে একটি অটোভ্যানে নিয়ে এসে দশমিনা উপজেলার সার্ভে কলেজের পাশে ফেলে রেখে যান। এরপর থেকে স্থানীয় কিছু মানুষ জয়নব বেগমকে নিয়মিত খাবার দিতেন। তবে তার ঘুমানোর জায়গা হয়েছিল দশমিনা পটুয়াখালী সড়কের পাশে এক পরিত্যক্ত ঘরে।

সম্প্রতি জয়নব বেগমের ঘটনা লিখে স্থানীয় এক যুবক ফেসবুকে পোস্ট দেয়। বিষয়টি পুলিশের নজরে এলে দশমিনা থানার ওসি মো. জসীম বৃহস্পতিবার দুপুরে জয়নব বেগমকে উদ্ধার করে দশমিনা হাসপাতালে ভর্তি করান। পাশাপাশি তাকে নতুন পোশাক কিনে দেন।

দশমিনা হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, জয়নব বেগমের চিকিৎসার সব ব্যয়ভার তিনি বহন করবেন। তিনি আরো জানান, বর্তমানে ওই বৃদ্ধা শারীরিকভাবে বেশ দুর্বল।

জয়নব বেগম জানান, সন্তানরা কেন তাকে মিথ্যা কথা বলে সড়কে ফেলে রেখে গেছে তা তিনি জানেন না। তিনি বলেন, যে সন্তানদের নিজের জীবনের থেকেও আপন মনে করেছি তারা আমার সঙ্গে এরকম করতে পারে আমি স্বপ্নেও ভাবতে পারিনা।

এ ব্যাপারে দশমিনা থানার ওসি মো. জসীম জানান, জয়নব বেগমের বক্তব্য অনুযায়ী তার ছেলে-মেয়েদের খোঁজ করা হচ্ছে।