বন্ধ কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভর্তির নির্দেশ

55

করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে আর্থিক সংকটে পড়ে কোনো কিন্ডারগার্টেন স্কুল বন্ধ হয়ে গেলে, সেসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভর্তির নির্দেশ দিয়েছে সরকার।

রবিবার (৬ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানালেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আকরাম-আল-হোসেন।

সিনিয়র সচিব আকরাম-আল-হোসেন বলেন, দেশে অনেকগুলো কিন্ডারগার্টেন আছে, সে সমস্ত কিন্ডারগার্টেন আর্থিক কারণে বন্ধ হয়ে যেতে পারে। আমরা ইতোমধ্যে নির্দেশনা দিয়েছি সকল ডিপিওকে (জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা) যদি কেজি স্কুল বন্ধ হয়ে যায় তাহলে সেই স্কুলের শিক্ষার্থীরা যে ক্যাচমেন্ট এলাকার, সেই এলাকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভর্তি করতে। কোনো স্টুডেন্ট বাদ যাবে না।

তিনি আরও বলেন, প্রত্যেক স্কুলের প্রধান শিক্ষকদের দায়িত্ব দিয়েছি কোভিডের পর যখন স্কুল খুলবে তার আগেই নিজেদের স্কুলের জন্য পরিকল্পনা তৈরি করবে। সেই পরিকল্নায় সবকিছু থাকবে, নিরাপত্তা, ঝরে পড়া। সঠিকভাবে সব মেইনটেন করতে পারলে আশা করি, আমাদের যে আশঙ্কা ঝরে পড়া, সেটা হয়তো অনেকটাই রোধ করতে পারব।

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়া ঠেকাতে বছরের যে কোনো সময় ছাড়পত্র (টিসি) ছাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের ভর্তি করাতে এর আগে নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

মহামারীর মধ্যে অনেক কিন্ডারগার্টেন বন্ধ হয়ে যেতে পারে জানিয়ে একজন সাংবাদিক জানতে চান, এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়ার ঝুঁকি রয়েছে কি না?

জবাবে সিনিয়র সচিব জানান, এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদেরও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভর্তি নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।